November 05, 2019

ইমেইল মার্কেটিং কি? কয় প্রকার ও কি কি? ইমেইল মার্কেটিং করার পদ্ধতি।

ymail marketing bangla

ইমেইল মার্কেটিং কি? কয় প্রকার ও কি কি? ইমেইল মার্কেটিং করার পদ্ধতি।

আজকে আপনাদের মাঝে শেয়ার করবো কিভাবে ইমেইল মার্কেটিং করবেন এবং কি কি করা উচিত এবং কি কি বর্জন করা উচিত। এবং ইমেইল মার্কেটিং করার পদ্ধতি। সাথে কোন বিষয়টি মেনে খেয়াল রাখতে হবে।

ইমেইল মার্কেটিং কাকে বলেঃ

Email এর মাধ্যমে যদি অন্য লোকদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করে ব্যবসার বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয় তবে তাকে ইমেইল মার্কেটিং বলে। এক কথায় কোন সেবা বা পন্যের প্রচার করার জন্য যদি কোন ব্যক্তিকে ইমেইল করা হয় তবে তাকে E-mail Marketing বলে।

ই-মেইল মার্কেটিং এর প্রকারভেদঃ

সাধারনত Email Marketing তিন প্রকার হয়ে থাকে। যেমনঃ
  1. Transactional Email Marketing: এই পদ্ধতিটি ব্যবহার হয়ে থাকে যখন আমরা কোন পপুলার ওয়েবসাইট যেমনঃ Amazon.com অথবা Ebay.com বা এ জাতীয় কোন অয়েবসাইটে রেজিষ্ট্রেশন করি তখন তাদের সাইট থেকে আমাদের একটি ধন্যবাদ জানিয়ে একটি মেইল পাঠায়। এ জাতীয় মেইলকেই বলা হয় Transcational মেইল।
  2. Solo Ad: অনেক সময় বড় বড় কম্পানিগুলো তাদের ব্যবসার প্রচার চালানোর জন্য ইমেইল মার্কেটার/প্রভাইডারদের নিকট হতে Email list ক্রয় করে উক্ত লিষ্ট অনুযায়ী তাদের ব্যবসায়িক বিজ্ঞাপন প্রচার করে থাকে এভাবে লিষ্ট ক্রয় করে Email পাঠানোকে Solo Ad বলে।
  3. Direct mail: আপনি যখন কাউকে কোন বিষয়ের উপর সারাসরি মেইল প্রদান করবেন তখন এ মেইলকে বলা হয় Direct mail.
Email list collect করাঃ
ইমেইল মার্কেটিং করার জন্য Eamil List Collect করা অত্যান্ত জরুরি কারন list না থাকলে ইমেইল পাঠাবেন কাকে। ইমেইল সেন্ড করার জন্য আপনার হাতে একটা কালেক্ট করা ডাটাবেজ থাকতে হবে।
email merketing bangla
Eamil List Collect করার প্রকারভেদঃ
Eamil List Collect করার জন্য সাধারন দুটি পদ্ধতি আছে একটি হলো Black hat পদ্ধতি অন্যটি হলো What hat পদ্ধতি।

Black hat পদ্ধতিঃ

ব্লাক হ্যাট পদ্ধতি হলো Email Collect করার একটা অন্যায় পদ্ধতি যার মাধ্যমে অন্যায়ভাবে Email ID কলেক্ট করা হয়। Black hat পদ্ধতিতে বিভিন্ন সফটওয়্যার বা বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কালেক্ট করা যায়। এভাবে ইমেইল না পাঠানো ভালো কারন কারো অনুমতি ছাড়া তাকে Mail পাঠানো স্পাম বা অন্যায় মধ্য পরে।

what hat পদ্ধতিঃ

what hat পদ্ধতি হলো Email list Collect করার একটি সঠিক পদ্ধতি। এ পদ্ধতিতে আপনার সংগ্রহকৃত লিষ্টটি ১০০% কার্জকর হবে। এ জন্য আপনার দরকার হবে একটি ওয়েবসাইট অথবা একটি ব্লগিং সাইটের। আপনার অয়েবসাইটে/ ব্লগিং সাইটে flowed by Email গ্যাজেটটি জুড়ে দিলেই হবে। আর যারা আপনার ওয়েবসাইট ভিজিট করবে তারা যদি তাদের Email ID আপনার সাইটে সাবমিট করে দিন। যারা আপনার সাইটে সাবস্ক্রাইব করবে তাদের লিস্ট তৈরি হতে থাকবে একটা স্থায়ী ইমেইল লিষ্ট যা আপনার ভবিষ্যতের বিশাল ডেটা সম্পদ হিসাবে রয়ে যাবে।

E-mail পাঠানোর কিছু নিয়মঃ

ইমেইল পাঠানোর কিছু নিয়ম আপনাকে বাধ্যতামূলক ভাবে মেনে চলতে হবে। কারন রাস্তায় গাড়ি চালাতে গেলে আপনাকে ট্রাফিক সিগন্যাল সম্পর্কে সসম্পূর্ণ ধারনা থাকতে হবে। আপনার যদি ট্রাফিক সিগন্যাল সম্পর্কে কোন রকম ধারনা না থাকে তাহলে দূর্ঘটনা ঘটা স্বাভাবিক। তাই কোন কাজ করার আগে সে কাজের নিয়ম কানুন জানা জুরুরী। সঠিকভাবে নিয়ম-কানুন না মেনে ইমেইল মার্কেটিং করতে গেলে আপনার মেইল Inbox এ না গিয়ে Spam box এ চলে যেতে পারে।
  1. যাকে Email পাঠাবেন তার অনুমতি নিয়ে Mail পাঠানো ভালো তানাহলে আপনাকে অপরিচিত মনে করে Spam করে দিতে পারে। ফলে আপনার Mail Inbox এ না গিয়ে Spam box এ চলে যাবে।
  2. Unsubscribe যুক্ত করাঃ আপনি যখন কাউকে মেইল পাঠাবেন তখন উক্ত মেইলে Unsubscribe যুক্ত করে দিতে হবে যাতে কেউ যদি পরবর্তিতে এ ধরনের ইমেইল দেখতে আগ্রহী না হন তাহলে তিনি নিজে থেকেই তার নাম বাদ দিতে পারেন। এতে আপনার সুবিধা হবে, বেশি সময় নস্ট করে ইমেইল পাঠাতে হবে না। এবং রিপোর্ট থেকে বেচে যাবেন। আপনার সার্ভিস জাদের ভাল লাগে শুদু তাদের লিস্ট আপনার হাতে থাকল।
  3. নিজস্ব ওয়েব সার্ভার থাকলে ভালোঃ Email Marketing করার জন্য নিজস্ব ওয়েব সার্ভার/ ভাড়াকৃত সার্ভার থাকলে ভালো হয়। কারন gmail/ yahoo প্লাটফর্ম ব্যবহার করে ব্যবসার উদ্দেশ্যে ইমেইল পাঠালে ভিজিটররা আপনাকে স্পামার মনে করবে।
  4. আপনি যে জিনিসের বিজ্ঞাপন প্রচার করার জন্য ঠিক করবেন সে জিনিসের জন্য আপনাকে একটা সঠিক Subject নির্ধারন করতে হবে। কোন প্রকার অন্যায় বা ভূল ইনফরমেশনের কারনে আপনার সাইটের ভিজিটর বাড়াতে পারবেন। কিন্ত ঐ সকল ভিজিটর আর আপনার সাইটে কোনদিন আসবেনা। কারন ভূল তথ্য দারা প্রতারিত হলে কেউ আর দিতীয় বার সাইটে ফেরত আসে না।
  5.  আপনার কম্পানির একটা নির্দ্দিষ্ট ঠিকানা থাকতে হবে যাতে ভিজিটররা আপনাকে বিশ্বাস করতে পারে। আপনার ব্যবসার কোন ঠিকানা যদি না থাকে তাহলে আপনার মোবাইল নাম্বারটা দিয়ে দিতে পারেন যাতে কাষ্টমাররা আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারে।
  6. আডল্ট দৃশ্য প্রচার করার জন্য আপনাকে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। কারন আপনি যাকে মেইলটি পাঠাবেন তিনি যদি অন্য কারো সামনে মেইলটি ওপেন করে তাহলে লজ্জা পেতে পারে। তাই এ সকল E-mail এর Subject এর আগে "ADV:ADLT" অথবা "ADLT" ব্যবহার করা ভালো। এটি ব্যবহার করলে ভিজিটর মেইলটি সম্পর্কে বুঝতে পারবে।
  7. Email Marketing করার জন্য আপনাকে প্রথমেইএকটা Template তৈরি করে নিতে হবে। কারন আজকাল আর লিখালেখি করে কোন কম্পানির Email পাঠানো হয় না। অনেক সুন্দর সুন্দর Template তৈরি করে ওয়েবসাইটের বা ব্লগের মান বিস্তারিত বর্ণনা প্রদান করে Mail পাঠানো হয়। এতে সাইটের ট্রাফিক ও ভিজিটর অনেকগুন বেড়ে যায়।
আমাদের শেষ কথা:- যদি আপনার কাছে এই পোস্টটি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই পজেটিভ কমেন্ট করবেন এবং আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন।

0 comments: