November 21, 2019

Palki 2 - Responsive blogger template

Best premium blogger template download

Palki 2 Responsive Blogger Template is a simple blogging theme. this template are adsense redy. The most used blogging template can easily getting adsense. This theme You can used to create new blogs like tech, education, movie review, apps etc. Palki 2 template 100% fully Seo friendly, also layout design responsive seo friendly and ads redy template. This theme totally Castomizable and has a lot of awesome feature.

Palki 2 premium blogger template downloaf

Palki 2 Blogger Template Features

  • 100% Fully Responsive (check)
  • Google Testing Tool Validator (check)
  • SEO Friendly (check)
  • Mobile Friendly
  • 404 page 
  • Loading Speed
  • WhatsApp Sharing
  • Featured Post
  • Full-Width Post Layout
  • Auto Read More With Thumbnail
  • Ads Ready
  • Two types of menu
  • Multi Dropdown Menu
  • Mega Menu
  • Search Widget
  • Colorful Social Widget
  • Related Posts with Thumbnail
  • Social Share Button
  • Email Newsletter Widget
  • 1 Types of Comments
  • Recent Post Widget
  • Label Post Widget
  • Random Post Widget
Pro future
  • Remove Footer Credits.
  • For Unlimited Domains.
  • Get Premium Support.
  • Remove Encrypted Scripts.
  • Regular Template Updates.
  • Premium Widget Codes

Palki 2 blogger template download

If You Want To Buy this site template Premium Version Theme Connect Admin Facebook (Omar Ali). You can connect also ymail: omarali006.oa@gmail.com

Thanks for visiting our website. Have a good day😃.

November 17, 2019

কথা বলুন 34 পয়সা মিনিট যেকোনো অপারেটরে Brilliant অ্যাপের মাধ্যমে!!

brilliant connect
কথা বলুন সব চেয়ে কম রেটে মাএ ৩৪ পয়সা মিনিট যেকোনো নাম্বারে Brilliant অ্যাপের মাধ্যমে!!

আসসালামু আলাইকুম। আপনারা অবশ্যই পোষ্টের টাইটেল দেখেই বুঝে গেছেন কি বিষয়ে আজকের টিউনটি হতে যাচ্ছে তো কিছুদিন যাবত লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে সকল অপারেটর তাদের কল রেট বাড়িয়ে দিয়েছে তো অফারের মাধ্যমে কথা বললে দেখা যায় প্রতি মিনিটে 60 পয়সা অথবা জিপি সিমের কথা না বললেই নয় এক মিনিট কথা বললেও ২ টাকার বেশি কেটে নেওয়া হয় শুধু ভয়েস কল করার জন্য।

তাই আমি আজকে আপনাদের মাঝে এই টিউনটি নিয়ে আসলাম এই টিউন অনুসরনের মাধ্যমে আপনারা খুব সহজেই 34 পয়সা মিনিট যেকোনো নাম্বারে কথা বলতে পারবেন এবং যেকোন অপারেটরে। তবে বাহিরের দেশে বা বিদেশে কল করার জন্য হয়তো একটু বেশি পরিমাণ টাকা কাটবে।

brilliant connect how to work
প্রথমেই আপনাকে অ্যাপটি ইন্সটল করতে হবে। তো অ্যাপটি ইন্সটল করার জন্য আপনাকে প্লে স্টোরে গিয়ে সার্চ করতে হবে "Brilliant Connect" তারপর অ্যাপটি ইন্সটল করতে হবে অথবা আপনি নিচের দেওয়া ডাউনলোড লিঙ্ক থেকে অ্যাপসটি ইন্সটল করে নিতে পারেন।

Brilliant Connect App Information 

Apps Name :- Brilliant Connect
Apps Size :-  26 Mb+
Apps Prize :- Free
Apps Ads :- No
Apps Download :-  500,000+ downloads
Download Link :- [Download ##download##]

অ্যাপটি ডাউনলোড করার পর অ্যাপটি ওপেন করবেন এবং রেজিস্টার করার জন্য আপনার নাম্বার দিবেন। আপনার ওই নাম্বারে একটি কোড পাঠানো হবে ওই কোডটি দিয়ে সাবমিট করুন এবং আপনার নাম দিয়ে লগইন করুন।

এটি দিয়ে কথা বলার জন্য আপনাকে টাকা রিচার্জ করতে হবে নিচের যেকোনো মাধ্যমে আপনি টাকা রিচার্জ করতে পারবেন।
bKash, BBBL NEXUS, MasterCard, VISA, AMERICAN EXPRESS, Islami Bank Bangladesh Limited.
bKash, BBBL NEXUS, MasterCard, VISA, AMERICAN EXPRESS, Islami Bank Bangladesh Limited.

অ্যাপটির সুবিধা:-
  • অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি যেকোন নাম্বারে কথা বলতে পারবেন মাত্র 34 পয়সা প্রতি মিনিট। 
  • যে কোন নাম্বারে কথা বলতে পারবেন লান্ড লাইন নাম্বারেও কথা বলা যায়।
  • আপনি ইচ্ছা করলে আপনার নাম্বার গোপন রেখে কথা বলতে পারবেন।
  •  অ্যাপটির মাধ্যমে অন্য ব্রিলিয়ান্ট অ্যাপ এ ব্যবহারকারীর সাথে ফ্রিতে কথা বলতে পারবেন এবং মেসেজ চ্যাট ভিডিও ফটো শেয়ারিং করতে পারবেন।
অ্যাপটির অসুবিধা:-
  • এটি ব্যবহার করতে হলে আপনাকে সব সময় ইন্টারনেট কানেক্ট করতে হবে। 
  • ইন্টারনেট স্পিড টুজি বা থ্রিজি স্পিডের চেয়ে কম হলে কথা স্পষ্ট বোঝা যাবে না।
  • এটি ব্যবহার করতে হলে আপনাকে রেজিস্টেশনের পাশাপাশি NID কার্ড অর্থাৎ ন্যাশনাল আইডি কার্ড দিয়ে ভেরিফাই করতে হতে পারে।
অ্যাপটি খুবই বিশ্বস্ত আমি নিজেও এই অ্যাপটি অনেক দিন যাবত ব্যবহার করছি এবং এটি খুব ভালোভাবে কাজ করছে। কম খরচে বেশি মিনিট কথা বলতে পারবেন তাই এটি ব্যবহার করতে পারেন।

শেষ কথা:- এই পোস্ট টি যদি আপনার কাছে ভাল লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন এবং আপনাদের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ।

November 13, 2019

Vidmate দিয়ে ইউটিউবের ভিডিও ডাউনলোড দেওয়ার সমস্যার সমাধান।

how to download youtube video with vidmate
যে ভাবে ইউটিউব এর ভিডিও ডাউনলোড করবেন। Vidmate এর সাহায্যে।

আজকের পোষ্টের বিষয় হলো আমরা কিছুদিন যাবৎ  ইউটিউব থেকে ডাউনলোড করার জন্য আমরা যে অ্যাপ্লিকেশনগুলো ব্যবহার করি সেগুলো তে ভিডিও ডাউনলোড করতে গেলে লিংক এনক্রিপটেড দেখাচ্ছে তো এটার সমস্যার সমাধান করব। কিভাবে কোনো রকম ঝামেলা ছাড়াই ডাউনলোড করতে পারবেন আগের মতই। আমাদেরকে ডাউনলোড করার জন্য পেজ শো করছে না। বারবার গুগোল ভেরিফাই চাচ্ছে। তাহলে এটাই একমাত্র সমাধান।

যে অ্যাপ্লিকেশনগুলোতে এই সমস্যা দিচ্ছে :-

  • Vidmate
  • Tubemate
  • Snaptube
সম্প্রতি এ রকম সমস্যার কারণ হলো গুগল নতুন প্রাইভেসি পলিসি যোগ করেছে তাই এখন কোনরকম  তথ্য বা অ্যাকাউন্ট ছাড়া কোন ভিডিও ডাউনলোড করতে দেবে না। কারণ এটা তাদের প্রাইভেসির আওতায় পড়ে না।

youtube video download withour captha
যদিও অ্যাপ্লিকেশনগুলোতে নতুন ভার্সনে ভিডিও সার্চ এবং ভিডিও তে ক্লিক করলে ভিডিও লোগো আসে কিন্তু প্লে করে না বা ডাউনলোড অপশনে ক্লিক করলে ডাউনলোড এর কোন কোয়ালিটি প্রর্দশন করে না।

এর সমাধান করতে হলে আপনাকে, আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট লগইন করতে হবে তাহলেই সব কিছু আগের মত ঠিক হয়ে যাবে এবং সব কিছু ডাউনলোড করতে পারবেন।

আপনি প্রথমে Videmate অথবা Tubemate  ওপেন করুন এবং সার্চ বারে Youtube.com লিখে Go দিন।
youtube video download
ইউটিউব ওপেন হলে পাশে থাকা প্রোফাইল এ  ক্লিক করুন এবং Sign In ক্লিক করুন।
youtube gmail log in
তার পর আপননার Ymail এবং Password দিয়ে Google account লগইন করুন।
আবার প্রথমে সার্চ বাড়ে Youtube.com লিখে Go দিন এবং আপনি যে ভিডিও  বা অডিও ডাউনলোড করতে চান তা লিখে সার্চ করুন। ভিডিওটির উপর ক্লিক করুন তাহলে দেখবেন ভিডিওটি Play হয়ে যাচ্ছে এবং নিচের ডাউনলোড অপশনে ক্লিক করলে আপনাকে কোন কোয়ালিটিতে ডাউনলোড করবেন তা শো করতেছে।
Vidmate দিয়ে ইউটিউব  ভিডিও ডাউনলোড দেওয়ার সমস্যার সমাধান।

শেষ কথাঃ- যদি আপনার এই টিউনটি পছন্দ হয়ে থাকে তাহলে শেয়ার করবেন এবং কমেন্ট করবেন আর যদি পোস্ট কোনরকম কপি করেন তাহলে অবশ্যই ক্রেডিট দিবেন। আর পোস্ট এর কিসু পরিবর্তন করে দিবেন। এতে প্লাগারিজম স্পাম থেকে বাঁচতে পারবেন। ধন্যবাদ। 

November 10, 2019

Karoly Takacs, The National Hero of Hungary

Only left Hand win gold medel karoly Takacs

Karoly Takacs, The National Hero of Hungary

We all are simple human being. Failure and success are common issue of our life. If we achieve success we used to be happy and proud of ourself. We all enjoy the achievement. But if we fail in any step of our life, most of the time we lose hope. We step back. We give up all the hopes in our life. We stop trying. We think we can't do. Most of the time we focus on what we don't have. But never think about the most powerful weapon that we have.

Hungarian national hero karoly Takacs
This article is about a real life hero who didn't lose his hope in his life ever. He failed in his life. He was very unlucky. But this things didn't effect him for his determination.

The hero is Karoly Takacs. Karoly Takacs of the Hungarian Army was the best shooter in the world. He was the first shooter to win gold medals in back to back Olympic in the 25 metre rapid fire pistol.

Karoly was born in 21 January 1910 in Budapest, Hungary. He joined  Hungarian Army. By 1936 he was one of the best shooters of the world. He practiced for years to be the best shooter in the world. He wanted to make his hand as the best shooting hand of the world. At that time he was a right hand shooter. He was thought as a world class shooter at his early age.

He was denied a place in the Hungarian shooting team for the 1936 Summer Olympics because he was a sergeant and only commissioned officers were allowed. Then he targeted the 1940 Summer Olympic. Before that he won many national and international shooting competition. Everyone thought that the gold medal of 1940 Summer Olympic in shooting would win Karoly Takacs. He also practiced round the year. He had two year left for 1940 Olympics. He knew he could prepare himself more sharply and as a unbeaten shooter.

During army camp in 1938 he was badly injured when a grenade exploded. He lost his right hand which one he wanted to make the the best shooting hand in the world. He was shocked. All the dreams was broken.

At that time he was very depressed and frustrated. He had only two way. First one is to give up and live life as a failed person and the second was is to try again with the left hand,  that hand which he couldn't write. He was taking treatment of his right hand for a month. He didn't think what he don't have. He forgot all the sorrow of his life. He forgot the past and focused on future. He focused on his only hand what he had. He practiced secretly otherwise people would criticize him. He was determined to continue his shooting career.In 1939 He came back after one year in competition. National shooting competition was held in Hungary. The best shooters of Hungary took part in that competition. The participators congratulated him for taking part and said, "This is the real spirit of a athlete." They thanked him for coming to inspire them. They didn't know Karoly practiced round the year for this competition.

In reply of their congratulation Karoly said, ''I haven't came here to inspire you. I'm here to compete with you. So be ready.''

He competed with his only hand . Then the one handed determined man won the competition. But he didn't stop there. He dream was bigger. He always wanted to be the best shooter in the world. Then he prepared himself for the next Olympic. The Olympic Games scheduled for 1940 to 1944 were cancelled due to Second World War.Then he was waiting for 1948 Olympics. At that time the young 28 years old shooter Karoly was at the age of 38. It was tough for him to compete with the young shooters. But this was not a big deal for him. He only focused on his dream. He participated in 1948 Olympics. He competed with the best shooters of the world. The one handed determined man won the gold medal at the 1948 Summer Olympic in London beating the favourite Argentine Carlos Enrique Valiente, who was the reigning world champion. But Karoly didn't stopped there. He again participated in the 1952 Summer Olympics in Helsinki and won a second gold medal. He changed the history of Olympics. Nobody could win gold medals in back to back Olympics before him. He made a great record. He is the third known physically disabled athlete. He won a bronze medal at the 1958 ISSF World Shooting Championships in 25 metre center fire pistol. He also won 35 Hungarian national shooting championships. After his career he was a coach.He ended his army careeer as a lieuternant colonel.

November 09, 2019

Essay on Drug Addiction


Essay drug addiction and intoxicants

The Dangers Of Taking Intoxicants

Or

The Dangers Of Drug Addiction

Introduction: Intoxicats are some of the things or drag that elate or excite a man beyond selfe-control. The drags that belong to this group are generally used in a measured way to case sleep or relive pain. But now days some derailed or frustrated persons are addicted to those Intoxicating things or drag.

Main intoxicants taken in our county: The main intoxicants taken in our country are wine, opium, hemp, heroin, morphine etc. Wine, opium and hemp are forbidden in our society. Heroin and morphine are restricted drugs. Heroin is a costly durgs. It is a very dangerous too. In those days this costly and dengerous drug is being smuggled in a large scale and has created alarming situation.

Dangers of taking the intoxicants: The man who takes intoxicants is elated or excited for a moment. He may be in a dreamland for a short time while in an abnormal condition. While he is in a abnormal condition many bad and unsocial works enchant him. But the immediate ill-effects of taking intoxicants are staggering, stammering, clumsy movement, severe headache etc. The intoxicants harm the stomach, liver, pancreas an brain cells of the persons who are addicted to them. The intoxicants, in a slow but steady way, crush the addicts.

Causes of addiction: Taking of intoxicants is a really such a bad habit. This habit is formed though bad association. Frustration is another cause of this addiction. Defeat in the struggle of life and unemployment problem create frustration among our young people. In order to forget the burden of life they start taking intoxicants and from this bad habit. Easy availability of the intoxicants is another important cause of forming this habit.

Measures for checking durg addiction: The intoxicants durg must not be sold in the open market. Those drugs should be under the direct control of the doctors who will use them if and when they are necessary. Effective measures should be taken to solve the unemployment problem of the country. Bad association should be avoided. Parents and guardians should give more and special attention ro the activities of their words. If all those things are done, the problem will be solved.

Conclusion: Durg addiction is a burning question of the day. It has created a serious personal amd national problem of the worst possible time. We all should try to get rid of it.

November 05, 2019

ইমেইল মার্কেটিং কি? কয় প্রকার ও কি কি? ইমেইল মার্কেটিং করার পদ্ধতি।

ymail marketing bangla

ইমেইল মার্কেটিং কি? কয় প্রকার ও কি কি? ইমেইল মার্কেটিং করার পদ্ধতি।

আজকে আপনাদের মাঝে শেয়ার করবো কিভাবে ইমেইল মার্কেটিং করবেন এবং কি কি করা উচিত এবং কি কি বর্জন করা উচিত। এবং ইমেইল মার্কেটিং করার পদ্ধতি। সাথে কোন বিষয়টি মেনে খেয়াল রাখতে হবে।

ইমেইল মার্কেটিং কাকে বলেঃ

Email এর মাধ্যমে যদি অন্য লোকদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করে ব্যবসার বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয় তবে তাকে ইমেইল মার্কেটিং বলে। এক কথায় কোন সেবা বা পন্যের প্রচার করার জন্য যদি কোন ব্যক্তিকে ইমেইল করা হয় তবে তাকে E-mail Marketing বলে।

ই-মেইল মার্কেটিং এর প্রকারভেদঃ

সাধারনত Email Marketing তিন প্রকার হয়ে থাকে। যেমনঃ
  1. Transactional Email Marketing: এই পদ্ধতিটি ব্যবহার হয়ে থাকে যখন আমরা কোন পপুলার ওয়েবসাইট যেমনঃ Amazon.com অথবা Ebay.com বা এ জাতীয় কোন অয়েবসাইটে রেজিষ্ট্রেশন করি তখন তাদের সাইট থেকে আমাদের একটি ধন্যবাদ জানিয়ে একটি মেইল পাঠায়। এ জাতীয় মেইলকেই বলা হয় Transcational মেইল।
  2. Solo Ad: অনেক সময় বড় বড় কম্পানিগুলো তাদের ব্যবসার প্রচার চালানোর জন্য ইমেইল মার্কেটার/প্রভাইডারদের নিকট হতে Email list ক্রয় করে উক্ত লিষ্ট অনুযায়ী তাদের ব্যবসায়িক বিজ্ঞাপন প্রচার করে থাকে এভাবে লিষ্ট ক্রয় করে Email পাঠানোকে Solo Ad বলে।
  3. Direct mail: আপনি যখন কাউকে কোন বিষয়ের উপর সারাসরি মেইল প্রদান করবেন তখন এ মেইলকে বলা হয় Direct mail.
Email list collect করাঃ
ইমেইল মার্কেটিং করার জন্য Eamil List Collect করা অত্যান্ত জরুরি কারন list না থাকলে ইমেইল পাঠাবেন কাকে। ইমেইল সেন্ড করার জন্য আপনার হাতে একটা কালেক্ট করা ডাটাবেজ থাকতে হবে।
email merketing bangla
Eamil List Collect করার প্রকারভেদঃ
Eamil List Collect করার জন্য সাধারন দুটি পদ্ধতি আছে একটি হলো Black hat পদ্ধতি অন্যটি হলো What hat পদ্ধতি।

Black hat পদ্ধতিঃ

ব্লাক হ্যাট পদ্ধতি হলো Email Collect করার একটা অন্যায় পদ্ধতি যার মাধ্যমে অন্যায়ভাবে Email ID কলেক্ট করা হয়। Black hat পদ্ধতিতে বিভিন্ন সফটওয়্যার বা বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কালেক্ট করা যায়। এভাবে ইমেইল না পাঠানো ভালো কারন কারো অনুমতি ছাড়া তাকে Mail পাঠানো স্পাম বা অন্যায় মধ্য পরে।

what hat পদ্ধতিঃ

what hat পদ্ধতি হলো Email list Collect করার একটি সঠিক পদ্ধতি। এ পদ্ধতিতে আপনার সংগ্রহকৃত লিষ্টটি ১০০% কার্জকর হবে। এ জন্য আপনার দরকার হবে একটি ওয়েবসাইট অথবা একটি ব্লগিং সাইটের। আপনার অয়েবসাইটে/ ব্লগিং সাইটে flowed by Email গ্যাজেটটি জুড়ে দিলেই হবে। আর যারা আপনার ওয়েবসাইট ভিজিট করবে তারা যদি তাদের Email ID আপনার সাইটে সাবমিট করে দিন। যারা আপনার সাইটে সাবস্ক্রাইব করবে তাদের লিস্ট তৈরি হতে থাকবে একটা স্থায়ী ইমেইল লিষ্ট যা আপনার ভবিষ্যতের বিশাল ডেটা সম্পদ হিসাবে রয়ে যাবে।

E-mail পাঠানোর কিছু নিয়মঃ

ইমেইল পাঠানোর কিছু নিয়ম আপনাকে বাধ্যতামূলক ভাবে মেনে চলতে হবে। কারন রাস্তায় গাড়ি চালাতে গেলে আপনাকে ট্রাফিক সিগন্যাল সম্পর্কে সসম্পূর্ণ ধারনা থাকতে হবে। আপনার যদি ট্রাফিক সিগন্যাল সম্পর্কে কোন রকম ধারনা না থাকে তাহলে দূর্ঘটনা ঘটা স্বাভাবিক। তাই কোন কাজ করার আগে সে কাজের নিয়ম কানুন জানা জুরুরী। সঠিকভাবে নিয়ম-কানুন না মেনে ইমেইল মার্কেটিং করতে গেলে আপনার মেইল Inbox এ না গিয়ে Spam box এ চলে যেতে পারে।
  1. যাকে Email পাঠাবেন তার অনুমতি নিয়ে Mail পাঠানো ভালো তানাহলে আপনাকে অপরিচিত মনে করে Spam করে দিতে পারে। ফলে আপনার Mail Inbox এ না গিয়ে Spam box এ চলে যাবে।
  2. Unsubscribe যুক্ত করাঃ আপনি যখন কাউকে মেইল পাঠাবেন তখন উক্ত মেইলে Unsubscribe যুক্ত করে দিতে হবে যাতে কেউ যদি পরবর্তিতে এ ধরনের ইমেইল দেখতে আগ্রহী না হন তাহলে তিনি নিজে থেকেই তার নাম বাদ দিতে পারেন। এতে আপনার সুবিধা হবে, বেশি সময় নস্ট করে ইমেইল পাঠাতে হবে না। এবং রিপোর্ট থেকে বেচে যাবেন। আপনার সার্ভিস জাদের ভাল লাগে শুদু তাদের লিস্ট আপনার হাতে থাকল।
  3. নিজস্ব ওয়েব সার্ভার থাকলে ভালোঃ Email Marketing করার জন্য নিজস্ব ওয়েব সার্ভার/ ভাড়াকৃত সার্ভার থাকলে ভালো হয়। কারন gmail/ yahoo প্লাটফর্ম ব্যবহার করে ব্যবসার উদ্দেশ্যে ইমেইল পাঠালে ভিজিটররা আপনাকে স্পামার মনে করবে।
  4. আপনি যে জিনিসের বিজ্ঞাপন প্রচার করার জন্য ঠিক করবেন সে জিনিসের জন্য আপনাকে একটা সঠিক Subject নির্ধারন করতে হবে। কোন প্রকার অন্যায় বা ভূল ইনফরমেশনের কারনে আপনার সাইটের ভিজিটর বাড়াতে পারবেন। কিন্ত ঐ সকল ভিজিটর আর আপনার সাইটে কোনদিন আসবেনা। কারন ভূল তথ্য দারা প্রতারিত হলে কেউ আর দিতীয় বার সাইটে ফেরত আসে না।
  5.  আপনার কম্পানির একটা নির্দ্দিষ্ট ঠিকানা থাকতে হবে যাতে ভিজিটররা আপনাকে বিশ্বাস করতে পারে। আপনার ব্যবসার কোন ঠিকানা যদি না থাকে তাহলে আপনার মোবাইল নাম্বারটা দিয়ে দিতে পারেন যাতে কাষ্টমাররা আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারে।
  6. আডল্ট দৃশ্য প্রচার করার জন্য আপনাকে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। কারন আপনি যাকে মেইলটি পাঠাবেন তিনি যদি অন্য কারো সামনে মেইলটি ওপেন করে তাহলে লজ্জা পেতে পারে। তাই এ সকল E-mail এর Subject এর আগে "ADV:ADLT" অথবা "ADLT" ব্যবহার করা ভালো। এটি ব্যবহার করলে ভিজিটর মেইলটি সম্পর্কে বুঝতে পারবে।
  7. Email Marketing করার জন্য আপনাকে প্রথমেইএকটা Template তৈরি করে নিতে হবে। কারন আজকাল আর লিখালেখি করে কোন কম্পানির Email পাঠানো হয় না। অনেক সুন্দর সুন্দর Template তৈরি করে ওয়েবসাইটের বা ব্লগের মান বিস্তারিত বর্ণনা প্রদান করে Mail পাঠানো হয়। এতে সাইটের ট্রাফিক ও ভিজিটর অনেকগুন বেড়ে যায়।
আমাদের শেষ কথা:- যদি আপনার কাছে এই পোস্টটি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই পজেটিভ কমেন্ট করবেন এবং আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন।

November 03, 2019

এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনের এর গুরুত্বপূর্ণ সিকিউরিটি কোড।

andriod top hiden secret  code

এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনের এর গুরুত্বপূর্ণ সিকিউরিটি কোড। যা সবার জেনে রাখা দরকার।

আজকে আমি আপানাদের মাঝে শেয়ার করবো। আন্ড্রয়েডের কিছু গুরুত্ব পূর্ন কোড। এই কোডের মাধ্যমে আপনার ফোনের হিডেন সেটিংস এর কাজ করতে পারবেন। আপনাদের প্রথমেই বলে রাখি প্ররতেকটি কোড পরিক্ষিত। তাই প্ররতেকটি কোড ভাল ভাবে কাজ করবে। উল্লেখ্য:- এই কোড গুলো শুধু আন্ড্রয়েড অপারেন্টিং সিস্টেম এর জন্য। নিচে কোড গুলো শেয়ার করা হল:

andriod to secret code

কোড লিস্ট:-

  • *#06# – IMEI নাম্বার প্রদর্শন করবে।
  • *2767*3855# – ফ্যাক্টরি রিসেট কোড (আপনার ফোনের সকল ডাটা ডিলেট হয়ে যাবে এবং ফোন আগের মতো নতুন ফাংশন হয়ে যাবে)।
  • *#7465625# – ফোনলক স্ট্যাটাস।
  • *#*#4636#*#* – ফোন এবং ব্যাটারি সংক্রান্ত তথ্য।
  • *#*#2664#*#* – টাচস্ক্রীন টেস্ট কোড।
  • *#*#273282*255*663282*#*#* – সকল মিডিয়া ফাইল ব্যাকআপ করার কোড।
  • *#*#197328640#*#* – সার্ভিস টেস্ট মোড কোড।
  • *#*#1111#*#* – FTA সফটওয়্যার ভার্সন।
  • *#*#1234#*#* – PDA এবং firmware ভার্সন।
  • *#*#232339#*#* – Wireless LAN টেস্ট কোড।
  • *#*#0842#*#* – ব্যাকলাইট ও ভাইব্রেসন টেস্ট কোড।
  • *#12580*369# – সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যার ইনফর্মেশন।
  • *#9900# – সিস্টেম ডাম্প মোড।
  • *#9090# – ডায়াগনস্টিক কনফিগারেশন।
  • *#*#34971539#*#* – ক্যামেরা ইনফর্মেশন।
  • *#872564# – ইউএসবি লগিন কন্ট্রোল।
  • *#301279# – HSDPA/HSUPA কন্ট্রোল মেনু।
  • *#*#7780#*#* – ফ্যাক্টরি রি-স্টোর সেটিং। গুগল অ্যাকাউন্টসহ সকল সিস্টেম ডাটা মুছে যাবে।
  • *2767*3855# – ফ্যাক্টরি ফরম্যাট সেটিং। ফোনের ইন্টারনাল ও এক্সটারনাল মেমরি কার্ডের ডাটা মুছে যাবে এবং ফোনের স্টক ফার্মওয়্যার রি-ইন্সটল হবে।
  • *#*#4636#*#* – ফোন এবং ব্যাটারি ইনফর্মেশন।
  • *#*#273283*255*663282*#*#* – ফাইল কপি স্ক্রীন। সব ইমেজ, সাউন্ড, ভিডিও, ভয়েস মেমো ব্যাকআপ করা যাবে।
  • *#*#197328640#*#* – সার্ভিস মোড কোড।
  • *#*#8255#*#* – G Talkসার্ভিস মনিটর কোড।
  • *#*#34971539#*#* – ক্যামেরা ইনফর্মেশন। ক্যামেরা ফার্মওয়্যার আপডেট অপশনটি ব্যবহার করবেন না। এতে আপনার ক্যামেরা ফাংশন বন্ধ হয়ে যাবে।
  • W-LAN, GPS and Bluetooth Test Codes:-
  • *#*#232339#*#* অথবা  *#*#526#*#* অথবা  *#*#528#*#* – W-LAN টেস্ট কোড। টেস্ট শুরু করার জন্য মেনু বাটন ব্যবহার করুন।
  • *#*#232338#*#* – ওয়াইফাই ম্যাক এড্রেস।
  • *#*#1472365#*#* – জিপিএস টেস্ট।
  • *#*#1575#*#* – আরেকটি জিপিএস টেস্ট কোড।
  • *#*#232331#*#* – Bluetooth টেস্ট কোড।
  • *#*#232337#*# – Bluetooth ডিভাইস ইনফর্মেশন।
  • *#*#0588#*#* – প্রক্সিমিটি সেন্সর টেস্ট।
  • *#*#0*#*#* – এলসিডি টেস্ট।
  • *#*#2664#*#* – টাচস্ক্রীন টেস্ট।
  • *#*#2663#*#* – টাচস্ক্রীন ভার্সন।
  • *#*#0283#*#* – প্যাকেট লুপ ব্যাক।
  • *#*#0673#*#* OR *#*#0289#*#* – মেলোডি টেস্ট।
  • *#*#3264#*#* – র‌্যাম ভার্সন টেস্ট।
এখানে দেয়া সকল কোড পরিক্ষিত। যদি কোনো কোড ভুল বসত্ কাজ না করে তাহলে কমেন্ট বক্স এ জানাবেন। আমরা পোস্ট আপডেট  করে দেব। যদি এই পোস্ট এর মাধ্যমে আপনার কোনো উপকার হয়, তাহলে পজিটিভ  কমেন্ট  করবেন এবং পোস্ট শেয়ার  করবেন। ধন্যবাদ।

November 01, 2019

যেভাবে ইউটিউব এর অডিও বা ভিডিও ডাউনলোড করবেন ওয়েবসাইটের এর মাধ্যমে।

youtube audio video download method
যেভাবে ইউটিউব এর অডিও বা ভিডিও ডাউনলোড করবেন ওয়েবসাইটের এর মাধ্যমে।

আসসালামু আলাইকুম। তো আপনারা কেমন আছেন? নিশ্চয়ই ভালো আছেন। আপনারা অবশ্যই বুঝতে পারছেন আজকের টিউনটি হচ্ছে কিভাবে কোন রকম অ্যাপ্স ছাড়া ইউটিউব এর ভিডিও ডাউনলোড করবেন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। আমরা অনেকেই অ্যাপস ব্যবহার করতে অনেক বিরক্ত বোধ করি কারণ এতে অনেক রকম  বিরক্তিকর বিজ্ঞাপন থাকে। তাই আমি আপনাদের কাছে আজকে আলোচনা করবো কিভাবে কোন রকম অ্যাপস ছাড়াই  ইউটিউব এর যেকোন ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন যেকোনো কোয়ালিটিতে। তো আর কথা না বারিয়ে শুরু করা যাক।

আমি প্রথমে আপনাদের জন্য ওয়েবসাইট লিস্ট দিচ্ছি যেকোন ওয়েবসাইট আপনি ব্যবহার করতে পারেন আপনার ইচ্ছামত এবং সুযোগ-সুবিধা বুঝে বা কোন সাইটের কত স্পিড সেটার উপর নির্ভর করে আপনি যেকোন সাইট ব্যবহার করতে পারেন।

এখানে একটি বিষয় হচ্ছে যে সকল সাইট একই ভাবে কাজ করে। তাই আলাদা আলাদা সাইটের জন্য আলাদা আলাদা পোস্ট এর কোন প্রয়োজন নেই।

ওয়েবসাইট লিস্ট।

যেভাবে অডিও বা ভিডিও ডাউনলোড করেবেন।

  • প্রথমে উপরের যে কোন লিংকে ক্লিক করুন। 
how to dawnlod youtube audio and video
  • আপনি যে ভিডিও বা অডিওটি ডাউনলোড দিতে চান সেই ভিডিও বা অডিওটির লিংক ইউটিউব থেকে কপি করবেন অথবা ব্রাউজারের থেকে ইউটিউব লিংক কপি করবেন।
youtube video and audio dawnload
  • যে ওয়েবসাইটে লিংকে ক্লিক করবেন সেই পেজে  প্রবেশ করলে দেখতে পাবেন ইউটিউব লিংক পেস্ট করার জন্য জায়গা রয়েছে সেখানে আপনার কপিকৃত লিংকটি পেস্ট করুন। এবং কনভার্ট বাটনে ক্লিক করুন।
youtube video download high quality
  • এখন দেখতে পাবেন আপনাকে ডাউনলোড করার জন্য অনেকগুলো অপশন বা কোয়ালিটি দেওয়া হয়েছে আপনি পছন্দমতো কোয়ালিটির উপর চাপ দিয়ে ডাউনলোড করে নিতে পারেন।
  • এছাড়া আপনি mp3 তে ক্লিক করে mp3 বা অডিও ডাউনলোড করতে পারেন।

যেভাবে লিংক ইডিট করে খুব সহজে ডাউনলোড করবেন।

youtube video download
  • আপনি যে ইউটিউব এর লিংক কপি করেছেন ওই কপি লিংক এডিট করে "youtube" এর শেষে ডাবল "pp" যোগ করে Go তে চাপ দিলে অটোমেটিক ডাউনলোড অপশন চলে আসবে আপনি কোয়ালিটি সিলেক্ট করে  ডাউনলোড করতে পারবেন।
যদি পোষ্টটি  আপনার ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই ভালো কমেন্ট করবেন এবং শেয়ার করবেন কারণ একটি আর্টিকেল লিখতে অনেক সময় ব্যয় করতে হয় এবং অনেক তথ্য অনুসন্ধান করতে হয়। ধন্যবাদ।

October 30, 2019

মাইক্রোসফট এক্সেল কি - এক্সেলের কাজ সম্পর্কে বিস্তারিত!

Microsoft excel bangla

মাইক্রোসফট এক্সেল কি - এক্সেলের কাজ সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন।

Excel কি?

Excel হলো Microsoft Corporation কের্তৃক তৈরিকৃত Windows ভিত্তিক একটি বহুল পরিচিত Spread Sheet Data Analysis Software। এটি বিশ্ববিখ্যাত Microsoft Corporation এর জনপ্রিয় প্রোগ্রাম। এর সাহায্যে জটিল গাণিতিক সমস্যার সমাধান, তথ্য ব্যবস্থাপনা এবং নিখুঁত ভাবে গ্রাফ তৈরি করা যায়। Excel এর সুবিশাল পৃষ্ঠাটি কলাম ও সারিভিত্তিক সেলে বিভক্ত হওয়ায় এতে বিভিন্ন তথ্য সন্নিবেশিত করে তথ্য বিশ্লেষণ করা যায় বলে একে Spread Sheet Data Analysis Program বলা হয়। এক্সেলে সেল সম্মলিত শীটকে বলে, স্প্রেড (Spread Sheet) শীট।

মাইক্রোসফট এক্সেল।

এক্সেল এর সাহায্যে আমরা কি করতে পারি?

Excel-এর Spread Sheet-কে আমরা একটি বিশাল বা অনেক পৃষ্ঠা হিসাবে গণ্য করতে পারি। কম্পিউটারের কী-বোর্ড এর সাহায্যে Spread Sheet-এ আমরা বিভিন্ন আক্ষরিক ও গাণিতিক তথ্য লিখতে পারি এবং গাণিতিক তথ্যগুলোকে বিভিন্ন ব্যাংকিং ব্যবস্থাপনাসহ যাবতীয় অর্থনৈতিক হিসাব-নিকাশ এক কথায় হিসাব সংক্রান্ত সকল কাজ Excel-এর Spread Sheet-এ করা হয়।

Microsoft Excel এর মাধ্যমে আমরা যে কাজগুলো করে নিতে পারি।

  • দৈনন্দিন হিসাব নিকাশ সংরক্ষণ ও বিশ্লেষণ।
  • ব্যাংকিং ব্যবস্থাপনার যাবতীয় হিসাব বিষয়ক বিশ্লেষণ।
  • জটিল বৈজ্ঞানিক ক্যালকুলেশন।
  • বেতন হিসাব তৈরি করণ।
  • পরীক্ষার ফলাফল তৈরি।
  • বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজেট প্রণয়ন।
  • পরিসংখ্যানের কাজ সম্পাদন।
  • সব ধরনের আর্থিক ব্যবস্থাপনা।
  • বৈদ্যুতিক হিসাব নিকাশের কাজ সম্পাদন।
  • ডাটা সংরক্ষণ ও ব্যবস্থাপনায় যাবতীয় কাজ সম্পাদন।
  • বিভিন্ন মূল বা প্রধান তথ্যকে আকর্ষণীয় করে উপস্থাপনের জন্য বিভিন্ন চার্ট বা গ্রাফ তৈরি ইত্যাদি।

What is Spread Sheet (ম্প্রেডশীট কি?)

Spread অর্থ ছড়ানো Sheet অর্থ পাতা অর্থাৎ Spread Sheet অর্থ ছড়ানো পাতা। এতে Graph Paper এর ন্যায় X ও Y অক্ষ বরাবর খোপ খোপ ঘর থাকে। অনেক গুলো ঘর সম্বলিত বড় শীটকে Spread Sheet বলে। X অক্ষ বরাবর ঘর গুলোকে Culumn (কলম) এবং Y অক্ষ বরাবর ঘর গুলোকে Row বা সারি বলা হয়।

Work Book কী?

এক বা একাধিক ওয়ার্কশীট নিয়ে একটি Work Book তৈরী হয়। একটি Work Book এ কয়েকটি Work Sheet থাকতে পারে। অর্থাৎ আমরা বলতে পারি একাধীক ওয়ার্কশীট সম্বলিত মাইক্রোসফ্ট এক্সেলের ফাইলকে Work Book বলে। সাধারণভাবে Work Book এ তিনটি Sheet থাকে। তবে প্রয়োজনে শীট সংখ্যা বাড়ানো যায়।

ওয়ার্কশীট (Work Sheet) কি?

ওয়ার্ক (work) অর্থ কাজ আর শীট (sheet) অর্থ পাতা। একত্রে ওয়ার্কশীট অর্থ হল কাজের জন্য বা নিমিত্তে পাতা। মূলতঃ স্প্রেডশীটই হল ওয়ার্কশীট। আমরা সাধারণতঃ দেখতে পাই যে, একটি বই বা খাতার ভিতরে অনেক গুলো পৃষ্ঠা থাকে। Excel-এ তেমনি ভিন্ন ভিন্ন পৃষ্ঠা বা ওয়ার্কশীট থাকে যার মধ্যে কাজ করা যায়।

সেল (Cell) কি?

Excel ওয়ার্কশীটটি কলাম ও রো' ভিত্তিক। কলাম ও সারির পরস্পর ছেদে তৈরিকৃত ছোট ছোট আয়তাকার ঘরকে Cell বলে। অনেক গুলো Cell মিলে একটি Sheet হয় । Excel -এ একটি সীটে ২৫৬টি কলাম এবং ৬৫,৫৩৬টি রো থাকে। বর্তমানে একটি Cell-এ সবমোট ৩২,০০০ (বত্রিশ হাজার) অক্ষর লেখা যায়।

October 29, 2019

[Internet Download Manager(IDM) – October Update v6.35.8] প্রি একটিভেটেড ভার্সন।

[Internet Download Manager(IDM) – October Update v6.35.8] প্রি একটিভেটেড ভার্সন।
IDM হল একটি ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানেজার। উইন্ডোস পিসি সফটওয়্যার যা আপনার ডাউনলোড ম্যানেজার হিসেবে কাজ করে। আপনি যে কোনো ওয়েবসাইট ভিসিট করুন না কেন, IDM যদি আপনার কম্পিউটারে ইনস্টল করা থাকে এবং স্রিপ্ট এনএবল করা থাকে বা আপনার ব্রাউজার এর সাথে ইন্টারগ্রেড করা থাকে, তাহলে সেই ওয়েব পেজে যদি কোন ডাউনলোড করার মতো কোনো ফাইল থাকে তা আপনা-আপনি IDM আপনাকে শো করবে। IDM নিয়ে তেমন বেশি কিছু বলার প্রয়োজন নেই বলেই মনে হয় কারন এটি একটি জনপ্রিয় এবং বহু ব্যবহারিত একটি সফটওয়্যার। আপনি যদি ল্যাপটপ বা পিসি ব্যবহার কারি হয়ে থাকেন তাহলে এ নাম আপনার কাছে বেশ পরিচিত। তাই আর তেমন কিছু আলোচনা করার প্রয়োজন নেই। যার কারনে আমি শুধু মাত্র এই সফটওয়্যার এর সামান্য ইতিহাস এবং কিছু গুরুত্ব পূর্ন ফিচারস, কিভাবে আপনি ডাউনলোড করবেন ও কিভাবে Un-Zip করে একটিভ করবেন তা নিয়ে আলোচনা করব।

Idm key full free
Internet Download Manager (IDM) হলো Tonec,Icn. দ্বারা ডেভলোপ করা।  আর এই Tonec,Icn. একটি আমেরিকান কোম্পানি, যা নিউ ইয়ারকে অবিস্থিত।  এর Tonec,Icn. টিম হলো Shareware পরিচালিত একটি ডেভলোপার টিম। এই Shareware এর একটি দারুন ওয়েবসাইট আসে যেখান থেকে আপনি বিভিন্ন পেইড সফটওয়্যার ফ্রিতে পেতে পারেন।  IDM সর্ব প্রথম ডেভলোপ করা হয় ১৯৯৯ সালে উইন্ডোস অপারেটিং সিস্টেম এর জন্য এবং আজ অবধি তাই আসে।  IDM এ পর্যত মোট ৬৫ টি এওয়ার্ড পেয়েছে যার বেশির ভাগই উচ্চ লেভেল এর সম্মাননা

ডাউনলোড করুন।

ডিরেক্ট ডাউনলোড লিঙ্ক :- [Download]

কি কিভাবে ইনস্টল এবং একটিভ করবেন ভাবে ইনস্টল এবং একটিভ করবেন।

উপরের লিংক থেকে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করুন।
  • এবার Extract করুন Winrar বা 7zip দিয়ে। যদি না থেকে এখান থেকে ডাউনলোড করে নিন। un-zip করা শেষ হলে, এবার “Setup” ফোল্ডার গিয়ে সফটওয়্যারটি ইনস্টল/ওপেন করুন।
  • ওপেন করার সাথে সাথে একটি বক্স আসবে Language সিলেক্ট করার জন্য। English দিয়ে OK দিন।
  • আরও একটি বক্স আসবে, সেখান ”Install as Homepage..” এইটার টিক চিহ্নটি আনমার্ক/তুলে দিয়ে Next দিন।
  • এইবার আবার English Language টিক দিয়ে Next দিন।
  • এইবার ক্লিক “Install” দিন, একটু অপেক্ষা করুন
ব্যাস হয়ে গেলো।